লেখকের ব্যাপারে

ডা : দিলীপ কুমার পাহাড়ি , এম ডি, ডি এন বি, নেফ্রলজি,মেডিকা সুপার স্পেসালিটি হাসপাতাল, কলকাতা

১৯৭৮ সালে MBBS এবং ১৯৮২ সালে MD পাশ করেন.
১৯৮৮ সালে DNB পাশ করেন.
তার পরে উনি পি জি হাসপাতালের প্রফেসর ছিলেন.
১৯৯৪ সালে উনি সরকারি হাসপাতালে ট্রান্সপ্লান্ট শুরু করেন.
২০০২ সালে পি জি হাসপাতালে DM কোর্স চালু করেন.
হিমো ডায়ালিসিস, ট্রান্সপ্লান্ট এবং পেরিটনিয়াল ডায়ালিসিস এর সঙ্গে সক্রিয় ভাবে যুক্ত.
একই ডায়ালিসিস সেন্টার এ ৪০০০ এর ও বেশি ডায়ালিসিস উনি প্রতি মাসে করে থাকেন.

শ্রীমতি পম্পা দত্ত , কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০০৫ সালে শিক্ষাবিজ্ঞানে (Education)

এম এ এবং ২০০৮ সালে বি এড পাশ করেন। বর্তমানে উনি আমেদাবাদ শহরে থাকেন।, এই বইটির বঙ্গানুবাদ উনি করেছেন এবং সহজ সরল ভাষায় বিশেষজ্ঞ চিকিত্সকদের বক্তব্য উপস্থাপন করার চেষ্টা করেছেন যাতে অধিক সংখ্যক মানুষ কিডনির রোগের ব্যাপারে জানতে ও বুঝতে পারেন। মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করাই হলো ওনার মুখ্য প্রচেষ্টা।

ডা: সঞ্জয় পানডিয়া , এম. ডি., ডি. এন. বি. নেফ্রলজি,

ডা: সঞ্জয় পানডিয়া রাজকোট, গুজরাটের (ভারত) একজন অভিজ্ঞ কিডনি রোগ বিশেষজ্ঞ. উনি এম. ডি. মেডিসিনস এর ডিগ্রী ১৯৮৬ সালে এম. পি. শাহ. মেডিকেল কলেজ, জামনগর থেকে অর্জন করেন এবং ডি. এন. বি. নেফ্রোলজি ডিগ্রী ১৯৮৯ সালে ইন্সটিটিউট অফ কিডনি ডিসিজ এন্ড রিসার্চ সেন্টার থেকে অর্জন করেন. ১৯৯০ সাল থেকে উনি একজন কিডনি বিশেষজ্ঞ হিসাবে রাজকোট এ প্র্যাকটিস করে চলেছেন. ডা: সঞ্জয় পানডিয়া কিডনির রোগীদের সচেতনতা বাড়ানোর অবিরাম প্রয়াস করে চলেছেন. কিডনি রোগের ব্যাপারে সাধারণ মানুষের জন্য বই উনিই প্রথম গুজরাটি এবং হিন্দী ভাষায় লেখেন. মানুষের মধ্যে সচেতনতা বাড়াতে এবং কিডনির রোগকে প্রতিরোধ করার উদ্দেশে উনি "কিডনি এডুকেশান ফাউনডেশান" নামক সংস্থার প্রতিষ্ঠা করেন.

বেশি সংখ্যাক মানুষকে সাহায্য করার উদ্দেশ্যে ডা: সঞ্জয় পানডিয়া ভারতে প্রথম গুজরাটি এবং হিন্দী ভাষায় কিডনির ব্যাপারে ওএবসাইট এর প্রকাশন করেন ২০১০ সালে. ২০১২ সালে ইংরাজি ভাষায় প্রকাশ করেন. ২০১১ সালে সানাম্ধন্যা চিকিত্সক ডা; জ্যোত্স্না জপের(মুম্বাই) সহযোগিতায় মারাঠি ভাষায় কিডনির বই এবং ওএবসাইট এর প্রকাশ করেন. ২০১২ সালে হায়দেরাবাদের বিখাত্য চিকিত্সক ডা: এস. কৃষ্ণন এর সহযোগিতায় তেলুগু ভাষায় ওএবসাইট এবং বই এর প্রকাশ করেন. ৫ টি বিভিন্ন ভাষায় ১৮ মাসের মধে ওএবসাইট এ ৩.৮ মিলিয়ন হিট রেকর্ড হয়.

ডাক্তারদের জন্য ডা: সঞ্জয় পানডিয়া "প্র্যাকটিক্যাল গাইডলাইন অন ফ্লুইড থেরাপি" নামক বই লিখেছেন. এই বই টিই হলো কোনো ভারতীয় লেখক দ্বারা লিখিত প্রথম ফ্লুইড থেরাপি, এসিড বেস ডিসঅডার এবং পারেনটেরাল নিউট্রিশান এর একটি সম্পূর্ণ গাইড. ৩৬০০০ এর ও বেশি সংখ্যাক বই বিক্রি হয়ে গেছে প্রকাশনার পর থেকে. ডা: পানডিয়া চিকিত্সা বিদ্যার ছাত্রদের এবং অন্যানো ডাক্তারদের মধ্যে খুব জনপ্রিয় ব্যক্তি কারণ তিনি খুব সহজ ভাবে এবং বাস্তব বুদ্ধি সহকারে উপরক্ত বিষয়টির অধ্যাপনা করে থাকেন.